দুই দিনে বাংলাদেশের দরকার ২৯৫,হাতে আছে…

প্রথম ইনিংসে মাত্র ১৪৩ রানে অলআউট হয়ে যাওয়া স্বাগতিকদের সামনে দ্বিতীয় ইনিংসে ৩২১ রানের লক্ষ্য দেয় সফরকারী জিম্বাবুয়ে। দ্বিতীয় ইনিংসে অবশ্য দিন শেষে কোনো ভুল করেনি টাইগাররা। ১০.১ ওভার ব্যাটি করে বিনা উইকেটে ২৬ রান সংগ্রহ করেছে। যদিও আলোর স্বল্পতার কারণে তৃতীয়দিন খেলা হয়নি ১৩.৫ ওভার। ফলে সিলেট টেস্ট জিততে হলে আগামী দুই দিনে বাংলাদেশের করতে হবে ২৯৫ রান।

টার্গেট খুব ছোট হলেও চতুর্থ ইনিংসে রান তাড়া করে জেতা সহজ কাজ নয়। তাই সতর্ক হয়েই খেলতে হবে বাংলাদেশকে।

লিটন দাশ ৩৮ বল খেলে ১৪ ও ইমরুল কায়েস ২৩ বলে ১২ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছেড়েছেন।

এর আগে জিম্বাবুয়েকে দ্বিতীয় ইনিংসে ১৮১ রানের অলআউট করতে দারুণ ভূমিকা রাখেন তাইজুল ইসলাম প্রথম ইনিংসে ৬ উইকেটের পর এই ইনিংসেও নেন ৫টি উইকেট। ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো ১০ উইকেট দখল করেন তিনি। তিনি তুলে নেন ব্র্যান্ডন টেইলর, শেন উইলিয়ামস, সিকান্দার রাজা, পিটার মুর ও তেন্দাই চাতারাকে।

এছাড়া এক টেস্টে বাংলাদেশি বোলার হিসেবে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারির তালিকায় তিনি পেছনে ফেলেন সাকিব আল হাসানকে। তবে ১১ উইকেট তাকে টাইগারদের মূল বোলিং তালিকায় তৃতীয়তে রেখেছে। তার ওপরে রয়েছেন মেহেদি হাসান মিরাজ ও এনামুল হক জুনিয়র।

এর আগে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ৮ উইকেট ও ম্যাচে ৯ উইকেট নিলেও, এবারই প্রথমবার তার ঝুলিতে এলো ১০ উইকেট (মোট ১১)।

জিম্বাবুয়ের হয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে কেউই হাফসেঞ্চুরি করতে পারেননি। সর্বোচ্চ ৪৮ রান আসে অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজার ব্যাট থেকে। ২৫ রান করেন রাজা।

তাইজুল ছাড়া টাইগার স্পিনার মিরাজ ৩টি উইকেট পান। নাজমুল ইসলাম অপু নেন বাকি দুটি উইকেট।

জিম্বাবুয়ে তাদের প্রথম ইনিংসে ২৮২ করেছিল।