প্রেমিকাকে বিয়ে করতে বাবা-মা’র সম্মতি না পাওয়ায় সৌদি প্রবাসীর আত্মহত্যা

টাঙ্গাইলে প্রেমিকার সঙ্গে বিয়েতে বাবা-মায়ের সম্মতি না পাওয়ায় ক্ষোভে-অভিমানে নাঈম শিকদার (২২) নামে এক প্রবাসী কীটনাশক পান করে আত্মহত্যা করেছেন। সোমবার রাতে জেলার সখীপুর উপজেলার কালিয়া পাড়া ঘোনারচালা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সৌদি আরব ফেরত নাঈম ওই গ্রামের আব্বাস শিকদারের ছেলে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য শামছুল আলম ও নাঈম শিকদারের পরিবার এ তথ্য জানিয়েছেন।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, নাঈম শিকদার এক বছর আগে সরকারি মুজিব কলেজে অনার্স প্রথম বর্ষে অধ্যয়নরত অবস্থায় কাজের জন্য সৌদি আরব চলে যান। এদিকে কয়েক বছর আগে থেকে প্রতিবেশী এক মেয়ের সঙ্গে নাঈমের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নাঈমের একাধিক বন্ধু বলেন, বিদেশ থেকে এসে প্রেমিকাকে বিয়ে করার ইচ্ছা ছিল তার। এক মাস আগে নাঈম বিদেশ থেকে ফেরত আসেন। পরে তার পরিবারের কাছে বিয়ে করার ইচ্ছা প্রকাশ করেন।

কিন্তু তার পরিবার কিছুতেই রাজি হচ্ছিল না। রাজি না হওয়ায় এক পর্যায়ে সোমবার রাতে ক্ষোভ ও অভিমানে কীটনাশক পান করে নাঈম।

পরিবারের লোকজন টের পেয়ে তাকে প্রথমে সখীপুর ও পরে অবস্থার অবনতিতে টাঙ্গাইল জেনারেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নি যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাতে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সখীপুর থানার ওসি এসএম তুহীন আলী বলেন, এ ব্যাপারে থানায় কোনো লিখিত অভিযোগ পাননি। তিনি বিষয়টি দেখছেন